স্বামীকে খুশি করার এস এম এস ও উপায়

স্বামীকে খুশি করার এস এম এস ও উপায়

পৃথিবীতে অন্যতম ভালোবাসার মধ্য রয়েছে স্বামী- স্ত্রীর ভালবাসা। এ ভালোবাসার মধ্যে কোন কারণ থাকে না। স্বামী- স্ত্রীর ভালোবাসার মধ্যে রয়েছে আনন্দ, হাসি ও বেদনা। কেননা সুখ দুঃখ নিয়ে জীবন। প্রত্যেকটা মানুষের জীবনে সুখ আসবে আবার সুখের পরে দুঃখ ও আসবে। আজকে এই পোস্টে আমরা স্বামীকে খুশি করার এসএমএস ও স্ট্যাটাস নিয়ে এলাম।

স্বামীকে স্ত্রীগন নানাভাবে খুশি করতে পারে। তার জন্য শুধুই প্রয়োজন স্ত্রীর মানসিকতা। একজন স্ত্রী যদি তার স্বামীর সাথে হাসি মুখে সুন্দর কথা বলে তাহলে এমনিতেই তার স্বামী তার ওপর খুশি হয়ে যাবে। আর অন্যদিকে একজন স্ত্রী যদি তার স্বামীর সাথে খারাপ ভাবে কথা বলে তাহলে তার স্বামী রেগে গিয়ে তার সাথে খারাপ আচরণ করতে পারে।

Table of Contents

স্বামীকে খুশি করার এস এম এস

স্বামীকে খুশি করতে তার স্ত্রী নানা ধরনের পদক্ষেপ অবলম্বন করতে পারে। তবে আজকে আমি এই পোস্টে গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপটি তুলে ধরবো। আপনি যদি আপনার স্বামীকে খুশি করতে চান তাহলে আমাদের এই পোস্টকে অনুসরণ করতে পারেন। স্বামীকে খুশি রাখতে অবশ্যই তার সাথে সর্বদা ভালো ব্যবহার করুন।

এমনকি আপনার স্বামী যদি আপনার সাথে খারাপ আচরণ ও করে তবু তার সাথে আপনার সর্বদা ভালো ব্যবহার করতে হবে। কেননা ভালো ব্যবহারে মধ্য দিয়ে আপনি খারাপ ব্যবহার কেউ জয় করতে পারেন।

> ভালোবাসি বলেই ভালোবাসি। তোমাকে ভালোবাসার কোন কারণ নেই আমার কাছে। তুমি একমাত্র ব্যক্তি যার প্রতি ভালোবাসা আমার দিন দিন বেড়েই চলছে।

>আমি প্রতিটা মুহূর্তে শুধু তোমাকে নিয়েই ভাবি। কারণ তুমি ছাড়া ভাবার যে কেউ নেই আমার।

> সব সময় ভালোবাসার প্রকাশ করতে নেই অনেক সময় ভালোবাসা বুঝে নিতে হয়। অন্তরের কথাগুলোও বুঝে নিতে হয়।

> তুমিই একমাত্র ব্যক্তি যাকে আমি অন্তরের অন্তর স্থল থেকে ভালবাসি।

> তোমাকে ছাড়া আমার প্রতিটা মুহূর্ত অসহায় লাগে। কেননা তুমি ছাড়া আমি অপরিপূর্ণ।

> আমার ভীষণ ইচ্ছা আমি যেন তোমার কলে মাথা রেখে মরতে পারি।

> আমি যেন তোমাকে ভালবেসে পরকাল পর্যন্ত যেতে পারে।

> তুমি শুরু তুমি শেষ। তুমি বিহনে আমি নিঃশেষ।

> আল্লাহর অশেষ রহমতে আমি তোমাকে পেয়েছি। আচ্ছা তুমি এরকম কেন? যে তোমাকে ছাড়া আমি ভাবতেই পারি না।

> যখনই বাইরে থেকে বাড়ি ফিরবে তখন এক মুঠো ভালোবাসা নিয়ে ফিরে এসো। কেননা তুমি চলে গেলে আমি ভালোবাসার অভাবে থাকি।

স্বামীকে খুশি করার মেসেজ

পৃথিবীর সব স্ত্রীর সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ কাজ হচ্ছে তার স্বামীকে খুশি করা। একজন স্ত্রীর প্রকৃত বন্ধু হচ্ছে তার স্বামী।তার স্বামী তার সবচেয়ে কাছের বন্ধু। আপনারা অনেকেই স্বামীকে খুশি করার জন্য মেসেজ দেন। তাই আজকে আমরা স্বামীকে খুশি করার মেসেজ নিয়ে এলাম আপনাদের মাঝে।

> আমার প্রতিটা নিঃশ্বাসে প্রশ্বাসে শুধু তুমি। তুমি আমার ধ্যান ও তুমি আমার গান।

> সৃষ্টিকর্তার কাছে আমার একটাই চাওয়া আমরা দুজনে একসাথে মরতে পারি। কেননা তুমি হোলি আমার অক্সিজেন। তুমি ব্যতীত এই দুনিয়াতে বেঁচে থাকার আমি কল্পনাও করিনি।

> জীবন এক অনবদ্য অধ্যায়ের নাম। যে অধ্যায়টা শুধু তোমার নামে লেখা।

> তুমি বিহনে আমার এই জীবনটা নিম পাতার রস এর মত। যা খেতে অত্যন্ত তেতো।

> সৃষ্টিকর্তা যেন তোমার জন্য আমাকে তৈরি করেছে। তোমাকে ছাড়া আমি না বেঁচে থাকার কল্পনা করিনা।

> আমার এই ক্ষণস্থায়ী জীবনে শুধু তোমাকেই চাই। তুমি হলে আমার বেহেস্তের উপহার।

> বাতাসে একমুঠো ছেড়েছি খড় কুটো, কিনারাতে দাঁড়িয়ে। জানিনা কি হবে রেখেছি পা বাড়িয়ে।

> কখনো হারিয়ে যেওনা প্রিয়, সারাজীবন এরকমই থেকো।

> আমি চাই তোমার হাত ধরে সারা জীবন কাটিয়ে দিতে। জীবনের প্রতিটা ক্ষণে শুধু তোমাকেই চাই।

স্বামীকে খুশি করার উপায়

  • আপনি যদি আপনার স্বামীকে খুশি করতে চান তাহলে তার সাথে সর্বদা ভালোবাসা বিনিময় করুন। দেখবেন সে আপনাকে ছাড়া অন্য কাউকে কল্পনাও করতে পারবে না।
  • আপনার স্বামী যখন অফিস থেকে অথবা কোন কাজ সেরে বাড়িতে ফিরবে তখন তাকে সালাম দিয়ে তাকে জড়িয়ে ধরুন। দেখবেন সে আপনার প্রেমে বিভোর হয়ে গেছে।
  • সর্বদাই খাওয়ার সময় আপনি প্রথমে আপনার স্বামীকে খাইয়ে দিও। এরপর আপনি নিজে খান।
  • দিনের বেশিরভাগ সময়ে তাকে ভালোবাসার কথা বলুন। দেখবেন সে আপনার কল্পনায় বিভর থাকবে।
  • স্বামীর সেবা যত্ন করুন। দেখবেন স্বামী খুশি হয়ে আপনার দ্বিগুণ সেবা-যত্ন আপনাকে করবে।
  1. স্বামীর খাওয়া শেষে কাপড়ের আঁচল অথবা ওড়না দিয়ে তার মুখটা পরিষ্কার করে দিন। দেখবেন অফুরন্ত ভালোবাসার হাতছানি আপনাকে ডাকছে।
  2. স্বামী বাইরে থাকা অবস্থায় কিছু সময় পর পর তার খোঁজ খবর নিন, দেখবেন সে আপনার প্রেমে হাবুডুবু খাচ্ছে।
  3. কখনো তার সাথে খারাপ ব্যবহার করবেন না। বরং সে যদি আপনার সাথে খারাপ ব্যবহার করে তাহলে তাকে বুকে জড়িয়ে ধরুন। দেখবেন সে সবকিছু ভুলে পুনরায় আগের মত হয়ে গিয়েছে।
  4. কাজে যাওয়ার পূর্বে স্বামীর কপালে একটা চুমু দিয়ে দিবেন। দেখবেন সে খুশীতে আত্মহারা হয়ে গেছে।

স্বামীকে খুশি করার নিয়ম

  • স্বামীকে খুশি করার জন্য তাকে আলিঙ্গন করে প্রতিনিয়ত চুমু দেওয়ার অভ্যাস গড়ে তুলুন। দেখবেন সে আপনার প্রতি খুশি হয়ে গেছে।
  • ভালোবাসি বলে তাকে জড়িয়ে ধরুন। দেখবেন সে আপনাকে দ্বিগুণ ভালোবাসে ফিরিয়ে দিয়েছে।
  • তাকে বলুন আমি আপনাকে অন্তরের অন্তস্থল থেকে ভালবাসি। জীবনের শেষ নিশ্বাস আমি আপনার সাথে ত্যাগে করতে চাই।
  • আপনি একমাত্র পুরুষ যে আমাকে স্পর্শ করেছে। আমি আপনার স্পর্শেই বিভোর হয়ে থাকতে চাই।