পোল্যান্ড কাজের ভিসা 2023 – পোল্যান্ড যেতে কত টাকা লাগে

পোল্যান্ড ইউরোপ মহাদেশের মধ্যাস্থানীয় একটি ঐতিহাসিক অঞ্চল। এর পশ্চিমে রয়েছে জার্মানি এবং পূর্বে রয়েছে বেলারুশ। এর উত্তরে রয়েছে বাল্টিক সাগর। বাল্টিক সাগর এর সাথে ডেনমার্ক-এর সীমান্ত রয়েছে। দেশটির প্রথমে গণপ্রজাতন্ত্রী পোল্যান্ড নাম ছ।পরবর্তীতে তা শুধু পোল্যান্ড নামে রূপান্তর করা হয়। আজকের এই পোস্টে আমরা এই ঐতিহাসিক পোল্যান্ড এর কাজের ভিসা নিয়ে আলোচনা করব। আমাদের দেশে আমরা সবাই পোল্যান্ডকে তিনি ফুটবলের দেশ হিসেবে। কেননা প্রতিবছর পোল্যান্ড ফুটবলে দাপট দেখিয়ে থা। চলুন এবার সেই পোল্যান্ডের কাজের ভিসা নিয়ে  এবং পোল্যান্ড যেতে কত টাকা লাগে তার বিস্তারিত আলোচনা করা হলো।

পোল্যান্ড কাজের ভিসা ২০২৩

পোল্যান্ড কাজের ভিসা পেতে হলে আপনাকে দালালের মাধ্যমে পেতে হবে। কেননা আমাদের দেশ থেকে যতগুলো বিদেশ লোকজন যায় বেশিরভাগ দালালের মাধ্যমে। এছাড়াও আরেকটি পদ্ধতি আছে দূতাবাস থেকে ভিসা সংগ্রহ করা। দালাল অথবা দূতাবাস থেকে আপনি যে ভিসা পাবেন যার মেয়াদ থাকবে সর্বোচ্চ এক বছর। তবে আপনি যদি পোল্যান্ড যান সেক্ষেত্রে আপনি সেখান থেকে ভিসার মেয়াদ বাড়াতে পারব। এমনকি সেখানে গিয়ে আপনি স্থায়ীভাবে বসবাস শুরু করতে পারবেন। দালালের মাধ্যমে আপনি পোল্যান্ডের ভিসা 60 থেকে 90 দিনের মধ্যে পেয়ে যাব।

পোল্যান্ড যেতে কত টাকা লাগে

পোল্যান্ড যেতে আপনার খরচ পড়বে ৪ লক্ষ থেকে ৫ লক্ষ টাকা। তবে আপনার কোন আত্মীয় যদি পোল্যান্ড থেকে থাকে সে যদি ভিসা পাতায় তবে আপনার খরচ কম পড়বে। তখন আপনার খরচ পড়বে ১ লক্ষ থেকে দেড় লক্ষ টাকা। জনপ্রতি এর পরিমাণ খরচ পড়বে। তবে যদি আপনি ফ্যামিলি ভিত্তিক যেতে চান তবে আপনার খরচ আরো বেশি পড়বে। এখন পোল্যান্ড পেতে আপনার খরচের পরিমাণ নির্ভর করবে যে আপনি কোন ভিসায় যাব। যদি আপনি কী স্টুডেন্ট ভিসায় যেতে চান তাহলে আপনার খরচ পড়বে এক রকম।

আর আপনি যদি আপনি কাজের ভিসায় অথবা ভিজিট ভিসায় যেতে চান তখন আপনার খরচ পড়বে অন্যরকম। তবে কাজের ভিসায় সবচেয়ে খরচ বেশি হয়। স্টুডেন্ট ভিসায় খরচ পড়ে 40 থেকে 60 হাজার টা। ভিজিট ভিসায় খরচ করে এক লক্ষ টাকা। আর কাজের ভিসায় খরচ পড়ে পাঁচ থেকে সাত লক্ষ টা। সুতরাং বুঝতেই পারছেন আপনার ভাষার ওপর নির্ভর করবে টাকার পরিমান।

পোল্যান্ড ভিসা প্রসেসিং

পোল্যান্ড ভিসা প্রসেসিং করার জন্য প্রথমেই প্রয়োজন ভিসা আবেদনের জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্র। নিচে থেকে দেখেনি ভিসা প্রসেসিং এর জন্য যে সকল কাগজপত্র প্রয়োজন।

  • এক বছর মেয়াদ সম্পন্ন একটি পাসপোর্ট লাগবে।
  • দুই কপি পাসপোর্ট সাইজ ছবি লাগবে। ছবিটি সম্প্রতি তোলা থাকতে হবে।
  • আপনার পাসপোর্ট এর ডাটা পেজগুলোর ফটো ছবি যুক্ত করতে হবে।
  • অন্তত ত্রিশ হাজার ইউরো এর স্বাস্থ্য বীমা থাকতে হবে।
  • আবেদন ফরম ইংরেজিতে পূরণ করতে হবে।
  • প্রতিটি ভিসার জন্য ৭০ ইউরো পরিমাণ টাকা প্রদান করতে হবে।
  • যদি আপনি ভ্রমণ করতে চান তাহলে হোটেল বুকিং এর তথ্য দিতে হবে।
  • এছাড়াও আপনার ব্যাংক হিসাবের তথ্য দিতে হবে।

সবকিছু ঠিকঠাক হলে তারপর আপনি আপনার আবেদনপত্র জমা দিতে পারেন। আবেদনপত্র জমা দেওয়ার পর আপনার 60 থেকে 90 দিন তারা সময় নেবে। এর মধ্যে আপনি আপনার ভিসা পেয়ে যাব।

পোল্যান্ড ভিসা আবেদন

পোল্যান্ড ভিসা আবেদন করার জন্য আপনাকে আবেদন ফরম সম্পন্ন ইংরেজিতে পূরণ করতে হবে। ইংরেজিতে পূরণ করার পর তারা আবেদনের জন্য যা যা থাকবে সবকিছু দিতে হবে। ভিসা আবেদনের জন্য কি কি লাগে তা আমি ওপরে দিয়ে দিয়েছি। সবকিছু ঠিকঠাক ভাবে হাতে নিয়ে তারপর আপনাকে ভিসা আবেদন করতে হবে। আপনি ভিসা আবেদনের দুই থেকে তিন মাসের মধ্যে তা পেয়ে যাবেন।

পোল্যান্ড ভিসা খরচ

পোল্যান্ড যেতে তিন ধরনের ভিসা ব্যবহৃত হয়। স্টুডেন্ট ভিসা, কাজের ভিসা, ভিজিট ভিসা। এখন আপনার ভিসা খরচ নির্ভর করবে আপনি কোন ভিসায় পোল্যান্ড যাবেন তার উপর। স্টুডেন্ট ভিসায় পোল্যান্ড থেকে খরচ হয় 60 থেকে 70 হাজার টাকা। আর আপনি যদি কাজের ভিসায় যান তাহলে ৪ লক্ষ থেকে ৫ লক্ষ টাকা। আর ভিজিট ভিসায় যেতে আপনার খরচ পড়বে সর্বোচ্চ এক লক্ষ টাকা যাবতীয় খরচ সহ।

Read More

মালয়েশিয়া যেতে কত টাকা লাগে ও বয়স কত লাগে

f4 ভিসা আমেরিকা – আবেদন করার নিয়ম ও খরচ

মালদ্বীপ ভিসা খরচ – মালদ্বীপ হোটেল ভিসা

কুয়েত ভিসা চেক করার নিয়ম

Hosting Partner