কাতার ক্লিনার ভিসা খরচ, বেতন

কাতার ক্লিনার ভিসা খরচ ও বেতন কত

সৌদি আরবের মত কাতার উত্তপ্ত ও শুষ্ক মরুভূমির অঞ্চল। কাতার পারশ্য উপসাগরের একটি দেশ হিসেবে পরিচিত। এখানকার বেশিরভাগ লোক দোহা শহরে বসবাস করে। এখানকার অর্থনীতি খনিজ তেল ও প্রাকৃতিক গ্যাসের উপর নির্ভরশীল। বিশেষ করে খনিজ তেলের কারণে কাতার সমৃদ্ধশালী একটি দেশ। কাতার তাদের তৈরি নির্মাণ কাঠামোগুলোর জন্য এবং বিভিন্ন কাজের উদ্দেশ্যে প্রতিবছর বিভিন্ন দেশ থেকে শ্রমিক নিয়োগ দিয়ে থাকে।

তারা যে সকল কাজের জন্য শ্রমিক নিয়োগ দিয়ে থাকে তার মধ্যে ক্লিনার ভিসায় বেশিরভাগ শ্রমিক নিয়োগ দেয়। যারা ক্লিনার ভিসায় তাদের যেতে ইচ্ছুক আজকের পোস্টটি তাদের জন্য। কেননা কোন দেশে যাওয়ার পূর্বে তিনি যে ভিসাতে যেতে চান তার খরচ ও বেতনের পরিমাণ জানা আবশ্যক। আজকের এই পোস্টে আমি কাতার ক্লিনার ভিসা খরচ ও এর বেতন সম্পর্কে বিস্তারিত তুলে ধরব।

Table of Contents

কাতার ক্লিনার ভিসা

কাতার দেশটি বিভিন্ন কাজের পাশাপাশি দেশটিকে পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন রাখার ব্যবস্থা নিয়েছে। এর জন্য তারা রাস্তা ক্লিনার ও বিভিন্ন কোম্পানি, ক্লিনিক, হসপিটাল, শপিংমল, অফিস আদালত পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন রাখার জন্য বিভিন্ন দেশ থেকে শ্রমিক নিয়োগ দেয়। বেশিরভাগ তারা রোড ক্লিনার ও শপিংমল ক্লিনার এর জন্য ক্লিনার ভিসা দিয়ে থাকে। নতুন বছরে কাতার সরকার ক্লিনার ভিসা তে শ্রমিক নিয়োগদের বিজ্ঞপ্তি দিয়েছে।

কাতার ক্লিনার ভিসাতে বেতনের পরিমাণ অনেক ভালো হয়ে থাকে। তাছাড়া ক্লিনার ভিসাতে গেলে খুব একটা পরিশ্রমের কাজ পড়ে না। সেইসাথে এই কাজের কোন প্রকার রিস্ক নেই। তাছাড়া বিভিন্নভাবে বাড়তি ইনকাম করা যায়। যার কারণে বেশিরভাগ মানুষ ক্লিনার সাথে যেতে ইচ্ছুক। চলুন এবার নিচে থেকে জেনে নেই কাতার ক্লিনার ভিসা খরচ ও বেতন সম্পর্কে।

কাতার ক্লিনার ভিসা খরচ

আপনি যদি ক্লিনার ভিসাতে কাতার যেতে চান সেক্ষেত্রে আপনার সবমিলিয়ে খরচ পড়বে ৪ লক্ষ ৫০ হাজার থেকে ৫ লক্ষ টাকা। এখানে আপনার খরচের হিসাব বিমান ভাড়া থেকে শুরু করে সবকিছু মিলিয়ে ধরা হয়েছে। তবে কাতার অবস্থানরত কোন ব্যক্তির মাধ্যমে যদি আপনি কোম্পানির ভিসা বের করতে পারেন তাহলে আপনার খরচের পরিমাণ অনেক কম হবে।

আমি এখানে যে হিসাব তুলে ধরেছি তা বাংলাদেশী কোন এজেন্সি বা দালালের মাধ্যমে যদি আপনি যেতে চান তবে আপনার এই পরিমাণ খরচ পড়বে। আর বাংলাদেশে বেশিরভাগ ভিসা এজেন্সি ও দালালের মাধ্যমে ভিসা পেতে হয়। তাছাড়া ভিসা পাওয়া যায় না বললেই চলে। কেননা এই ক্ষেত্রে অনেক দুর্নীতি চলে। আশা করি আপনি বুঝতে পেরেছেন।

কাতার যেতে কত টাকা লাগে

আপনি যদি কাতার যেতে চান সেক্ষেত্রে আপনার খরচ পড়বে ৪ লক্ষ ৫০ হাজার থেকে ৫ লক্ষ টাকা। তবে কোম্পানি ভিত্তিক এই টাকার পরিমান কিছুটা কম বেশি হতে পারে। যদি ভাল কোম্পানি থাকে তাহলে ভিসা এজেন্সি গুলো টাকার পরিমান বেশি নিয়ে থাকে। তাই আপনার টাকার পরিমান নির্ভর করবে কোম্পানির উপর।

কাতার বেতন কত

কাতার সর্বনিম্ন বেতন ১২০০ রিয়াল। যা বাংলাদেশী টাকায় ৩৩০০০ টাকা। আর ওভারটাইম মিলিয়ে বেতন পরে ২০০০ রিয়াল বা এর উপরে। আমরা জানি ১ রিয়াল = ২৮.২৭ টাকা। সুতরাং বুঝতেই পারছেন বেতনের পরিমাণ অনেক ভালো। আবার কাজ ভিত্তিক আপনার বেতন আরো বেশি হতে পারে।

এখানে আমি শুধু শ্রমিক ভিসার বেতন তুলে ধরেছি। যদি আপনার অফিসে কাজ পরে সে ক্ষেত্রে আপনার বেতন ৮০০০০ টাকার উপরে হবে। আর যদি আপনি ফোর ম্যান হতে পারেন তাহলে আপনার বেতন হবে ১ লক্ষ ২০ হাজার টাকার উপরে।

কাতার ক্লিনার ভিসা বেতন

কাতার ক্লিনার ভিসা বেতন সর্বনিম্ন ১২০০ রিয়াল। আর ওভারটাইম মিলিয়ে আপনার বেতন হবে ২০০০ রিয়াল। এখানে কিছু কিছু ক্ষেত্রে বেতন ১৪০০ রিয়াল থেকে ১৭০০ রিয়াল দিয়ে থাকে। এক্ষেত্রে ওভারটাইম মিলিয়ে আপনার হবে ২২০০ রিয়াল থেকে ২৫০০ রিয়াল পর্যন্ত। সুতরাং বুঝতেই পারছেন বেতনের পরিমাণ অনেক বেশি হবে।

Read More

ইতালি ভিসা খরচ – ভিসা আবেদনের লিংক

ঢাকা টু যশোর ট্রেনের সময়সূচী ও ভাড়া

মালয়েশিয়া কলিং ভিসা খরচ ও আবেদনের নিয়ম

কাতার ভিসা দাম কত ও বেতন কত